নারী ক্রিকেটারকে যৌন হয়রানি ও মারধর, মহিলা পরিষদের উদ্বেগ

প্রকাশিত: ১১:৫৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ৯, ২০২০

নারী ক্রিকেটারকে যৌন হয়রানি ও মারধর, মহিলা পরিষদের উদ্বেগ

চুয়াডাঙ্গা।চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার মাখালডাঙ্গা এলাকায় বখাটে কর্তৃক বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) শিক্ষার্থী ও চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রিকেট দলের সদস্য নারী ক্রিকেটারকে যৌন হয়রানি ও মারধরের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ।

পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি  ডা. ফওজিয়া মোসলেম ও সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এই প্রতিবাদ জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘নারী ক্রিকেটারকে যৌন হয়রানি ও মারধরের ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত সাপেক্ষে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং নির্য্তানের শিকার নারী ক্রিকেটার ও প্রতিবাদকারী যুবকদের সুচিকিৎসাসহ তার ও তাদের পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের জন্য দাবি জানাচ্ছে।’

এসময় এধরণের ঘটনা প্রতিরোধে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তৎপরতা বৃদ্ধি এবং যৌন হয়রানি ও উত্ত্যক্তকরণ বন্ধে আইন প্রণয়নে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানানো হয়।

উল্লেখ, গত শনিবার চুয়াডাঙ্গায় ওই নারী ক্রিকেটার সাইকেল চালিয়ে গ্রামের বাড়িতে ফেরার সময় মাখালডাঙ্গায় পৌঁছালে তিন বখাটে- শাওন হোসেন, ইউনুস আলী, আব্দুর রহিম তাঁকে হয়রানি করে। এর প্রতিবাদ করায় ওই তিন উত্ত্যক্তকারী মিলে ওই নারী ক্রিকেটারকে মারধর করে। এ সময় মাখালডাঙ্গা গ্রামের তিন যুবক মেয়েটিকে হয়রানির ও মারধরের প্রতিবাদ করলে বখাটেরাসহ শাওন হোসেনের বাবা মহিদুল ইসলামও প্রতিবাদকারী যুবকদের লাঠি দিয়ে মারধর করে। এ ঘটনায় চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।