নিষ্টুর বৈষম্যতার যেন শেষ নেই-তিন হাসপাতাল ঘুরেও মিলল না আইসিইউ, অবশেষে পথেই মৃত্যু হলো উষ্ণের

প্রকাশিত: ১২:৩০ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৩, ২০২০

নিষ্টুর বৈষম্যতার যেন শেষ নেই-তিন হাসপাতাল ঘুরেও মিলল না আইসিইউ, অবশেষে পথেই মৃত্যু হলো উষ্ণের

নারায়ণগঞ্জ।নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার কলেজছাত্রী ইসরাত জাহান উষ্ণ তিন হাসপাতাল ঘুরে আইসিইউ না পেয়ে শ্বাসকষ্ট নিয়ে অবশেষে মারা গেলেন।

করোনায় আক্রান্তের ভয়ে হাসপাতালে তাকে চিকিৎসা দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ স্বজনদের। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। শুক্রবার (১২ জুন) সকাল থেকে ঘুরে ঘুরে বিকেলে মারা যান উষ্ণ।এদিকে তার মৃত্যুর জন্য মাতুয়াইল শিশু মাতৃসদন হাসপাতালকে দায়ী করেছেন উষ্ণের দুলাভাই বুয়েটের সিনিয়র সহকারী লাইব্রেরিয়ান মো. ইসমাইল হোসেন।

তিনি জানান, উপজেলার বারদী ইউনিয়নের আলমদী গ্রামের ওয়াহিদ ভূইয়ার মেয়ে উষ্ণ গত ৬ জুন শনিবার সিজারের মাধ্যমে মাতুয়াইল শিশু মাতৃসদন হাসপাতালে একটি কন্যা সন্তান জন্ম দেন। পরে ১১ জুন বৃহস্পতিবার তাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়।

পরে তিনি সোনারগাঁয়ের আলমদীর বাড়িতে গেলে শুক্রবার সকালে তার খিচুনি হয়ে মুখ দিয়ে লালা বের হতে থাকে। দ্রুত তাকে পুনরায় মাতুয়াইল শিশু মাতৃসদন হাসপাতালেে নিয়ে যায় স্বজনরা। কিন্তু হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাকে কোনো চিকিৎসা দেয়নি। এরপর উষ্ণকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর তার অবস্থার অবনতি হতে থাকে। ঢামেকেও আইসিইউ না থাকায় তাকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেয়ার পথে অ্যাম্বুলেন্সে তার মৃত্যু হয়।ইসরাত জাহান উষ্ণ বারদী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০১৬ সালে ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়। তিনি কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে হিসাববিজ্ঞান বিষয়ে অধ্যায়নরত ছিলেন।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে মাতুয়াইল শিশু মাতৃসদন হাসপাতালের ০২৭৫৪২৬২৭ এ নম্বরে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে কেউ ফোন রিসিভ করেননি।