গাইবান্ধায় ভুয়া মহিলা পুলিশ আটক

প্রকাশিত: ৩:২১ অপরাহ্ণ, জুন ১৪, ২০২০

গাইবান্ধায় ভুয়া মহিলা পুলিশ আটক

প্রতিনিধি, গাইবান্ধা।গাইবান্ধা সদরে শিখা বেগম(৩৫) নামে ভূয়া মহিলা পুলিশ পরিচয়দান কারীকে আটক করেছে গাইবান্ধা সদর থানা পুলিশ।

গতকাল সদরের বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শিখা বেগম গাইবান্ধা সদরের দক্ষিণ ধানঘড়া শাপলা মিল এলাকার রাকিবুল বারী অপুর স্ত্রী।

এজাহার সুত্রে জানা যায়- শিখা বেগম দীর্ঘ দিন যাবৎ বিভিন্ন এলাকায় মহিলা পুলিশের পরিচয় দিয়ে অর্থ উপার্জন ও বিভিন্ন দোকান থেকে বাকীতে ক্রয়করে প্রতারণা করে আসছিল।

একই ভাবে গত ১১/০৩/২০২০ তারিখে গাইবান্ধা কাচারী বাজার বকুলতলা ষ্টেশন রোডে অবস্থিত নিউ আল আমিন ট্রেডিং কোং এর প্রোঃ ফিরোজ আহমেদ লিয়াকত এর কাছ থেকে শার্ট প্যান্ট সহ অন্যান্য মোট ৮৭০০ টাকার কাপড় বাকীতে ক্রয় করে।

এরপর মহিলা পুলিশে চাকরীর সুবাধে তাকে বাকী দেওয়া হলেও সে আর কোন যোগাযোগ করেননি। এমনকি ফোনে যোগাযোগ করেও দেখা মেলেনি শিখার।

এরপর গত ১৩/০৬/২০২০ তারিখে দোকানের কর্মচারী শামসুল হক ভূয়া পুলিশ কথিত শিখা বেগমকে বাস টার্মিনাল এলাকার স্কাই ভিউ রোডে দেখতে পেয়ে মালিক ফিরোজ আহমেদকে ফোন দিলে তৎক্ষনাৎ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। তখন শিখা বলে আমি পুলিশে চাকরী করিনা। উপস্থিত জনগণ উত্তেজিত হয় এবং পুলিশে খবর দেন।

খবর পেয়ে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোঃ শাহরিয়ার তৎক্ষণাৎ এস আই কদ্দুস এর নেতৃত্বে একটি টিম পাঠায় এবং ভূয়া পুলিশ পরিচয় দানকারী শিখা বেগমকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।

ফিরোজ আহমেদ বাদী হয়ে শিখা বেগমকে আসামী করে সদর থানায় একটি প্রতারণ মামলা দায়ের করেন। যাহার মামলা নং ৪৩, তাং ১৪/০৬/২০২০।

এবিষয়ে জানতে চাইলে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোঃ শাহরিয়ার বলেন – ভূয়া মহিলা পুলিশ পরিচয় দানকারী শিখা বেগম নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। পুলিশ সেজে প্রতারণার অভিযোগে তার নামে প্রতারণার মামলা রুজু হয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আর্কাইভ

October 2020
M T W T F S S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031