গৃহবধূকে ফেরি থেকে নামিয়ে ধর্ষণ, মহিলা পরিষদের ক্ষোভ

প্রকাশিত: ২:২৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ৯, ২০২০

গৃহবধূকে ফেরি থেকে নামিয়ে ধর্ষণ, মহিলা পরিষদের ক্ষোভ

বেগম, ঢাকা।মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলায় এক গৃহবধূকে ফেরি থেকে নামিয়ে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ। এ ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

মহিলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপিত ডা. ফওজিয়া মোসলেম ও সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু স্বাক্ষ্যরিত এক বিবৃতিতে আজ বৃহস্পতিবার এসব তথ্য জানানো হয়।

মহিলা পরিষদের বিবৃতিতে নৌ পরিবহনসহ সকল যাত্রী পরিবহনে নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণসহ অনুমোদনহীন নৌ চলাচল বন্ধের দাবি জানানো হয়। গৃহবধূকে গণধর্ষণের ঘটনায়  সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানিয়ে এ সময় নির্যাতণের শিকার গৃহবধূর সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা সহ ওই গৃহবধূর ও তার পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়। এ সময় নারী ও কন্যা নির্যাতন প্রতিরোধ সকল সামাজিক শক্তিকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়।

উল্লেখ্য, গত ৭ জুলাই রাতে ঢাকা যাওয়ার উদ্দেশে অপেক্ষারত ওই গৃহবধূকে দ্রুত সময়ের মধ্যে শিমুলীয়া ঘাটে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে ফেরি থেকে স্পিডবোটে নামানো হয়। কিন্তু শিমুলীয়া ঘাটে পৌঁছে না দিয়ে পদ্মা নদীর চরের মধ্যে নামিয়ে বখাটে মাসুদ মোল্লা, মাহবুব মৃর্ধা ও নুর মোহাম্মদ হাওলাদারের কাছে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণের শিকার হন ওই নারী। পরবর্তীতে পুলিশ গৃহবধূকে উদ্ধার করেন।