শরীয়তপুরে বিয়ের দাবিতে ছামিয়ার অনশন

প্রকাশিত: ৩:৩২ অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০২০

শরীয়তপুরে বিয়ের দাবিতে ছামিয়ার অনশন

বেগম।শরীয়তপুর জেলার গোসাইরহাট উপজেলায় ১০জুন সকাল থেকে আললপুর ইউনিয়নে দর্জিকান্দি গ্রামে প্রেমিকা ছামিয়া প্রেমিক নুর আলমের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে রাত পযর্ন্ত অনশ করে।
জানা যায়, দুইজনের বাড়ি একই উপজেলার একই আলালপুর ইউনিয়নে। ৪নং ওয়াডের দর্জিকান্দি গ্রামের শাজাহান (হুমায়ন) মালের ছেলে নুর আলম ও ৫নং ওয়াডের গাজীকান্দি গ্রামের আহসান উল্ল্যা ফকিরের মেয়ে ছামিয়া (১৮)। তারা দুজনে ঢাকা কেরানীগঞ্জে সাট ও পেন্টের কারখানা একসাথে চাকুরি করতেন। তখন থেকে দুইজনের মধ্য প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে। করোনাভারাইসের সংক্রমণ শুরু হলে ছুটিতে তারা দুইজনে বাড়িতে চলে আসে। ছামিয়া বলেন, বাড়িতে আসার পর নুরআলম আমাদের বাড়িতে রিতিমত যাতায়ত করত। বিয়ের পেলাভন দেখিয়ে নুর আলম তার সঙ্গে রাতও কাটিয়েছেন

মুরুবীদের নিয়ে তাদের বাড়িতে বিয়ের কাথা বললেই নুর আলম শুধু সময় ক্ষেপন করে। বিষয়টি জানা জানি হলে মানসম্মানের ভয়ে নুরআলম বাড়িতে চলে আসি। কিছুক্ষুন পর ৪ নং ওয়াডের ইউপি সদস্য সোহেল মিয়া সরদার, নুরআলমের মামা সবুজ সরদার ও করিম ঘটনাটি সমাধান করে দিবে বলে আশ্বাস দিয়ে আমাকে বাড়ি নিয়ে গেলে আমার চাচা বলছে, নতুন করে সমাধানের কি আছে। ছামিয়া নুর আলমের বাড়িতে থাকবে। এদিকে আমি পুনরায় নুরআলমের বাড়িতে গেলে দেখি, নুর আলম সহ ওর বাবা ও মা ঘর তালা দিয়ে পালাইয়ছে। এ ব্যাপারে ছামিয়ার মা রহিমা বেগম গোসাইরহাট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে।
গোসাইর হাট থানার ওসি মোল্যা সোহেব আলী বলেন এ ব্যাপারে ছামিয়া মা রহিমা বেগম একটি অভিযোগ দায়ের করে। আমরা ঘটনা স্থালে গিয়ে তদন্ত করে আসামী গ্রেপ্তার চেষ্টা চলছে।